ঢাকা ০৭:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনামঃ
Logo বোয়ালমারীতে তদন্তে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে করা চাল আত্মসাতের অভিযোগের সত্যতা মেলেনি Logo বোয়ালমারীতে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে বিয়ে! Logo বোয়ালমারীতে ট্রাকের সংঘর্ষে মোটরসাইকেল চালক নিহত Logo বোয়ালমারীতে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন চেয়ারম্যান প্রার্থী মিলন মৃধা Logo মেডিকেলে চান্স পাওয়া সেই ছাত্র এবার পেল সুবাস সাহার আর্থিক সহায়তা Logo বোয়ালমারীতে ওসির কাটাগড় মেলার মাঠ পরিদর্শন ও বাজার মনিটরিং Logo বোয়ালমারীতে রমজানে ৩০০ টাকার কাঁচাবাজার মিলছে ১৫০ টাকায় Logo প্রেমে ব্যর্থ হয়ে কলেজ ছাত্রীকে অপহরণঃ মামলা, গ্রেফতার Logo স্কুল শিক্ষিকার ছেলে মেয়ে দুই স্কুলে ভর্তি! Logo বোয়ালমারীতে বাজার মনিটরিংয়ে নামলেন ওসি
প্রতিনিধি নিয়োগঃ
এটি একটি প্রিন্টভার্ষণ পত্রিকার ওয়েবসাইট। সারাদেশে জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ করা হবে। আগ্রহীদের শুধুমাত্র ইমেইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করার জন্য বলা হইলো। -বার্তা সম্পাদক।

সেই প্রতারক উজ্জ্বলের খপ্পরে এবার শার্শার এক ব্যবসায়ী

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় ০৫:০৮:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • ৩৩২ বার পড়া হয়েছে

নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার বাসিন্দা উজ্জ্বল বিশ্বাসের সাথে ব্যবসায়িক সম্পর্কের সুবাদে এবার শার্শার এক ব্যবসায়ীকে ফাঁসানোর অভিযোগে জিডি করেছেন ওই ব্যবসায়ী। সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী সেলিম হোসেনের চেকটি ডিজঅনার করে তাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসানোর পাঁয়তারা করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী সেলিম হোসেন থানায় জিডি করেছেন।

 

জিডি সূত্রে জানা যায়, নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার বাসিন্দা কালু বিশ্বাসের ছেলে উজ্জ্বল বিশ্বাস (৩৪) ব্যবসায়িক কাজে যশোর জেলার কোতোয়ালি থানাধীন নীলগঞ্জ তাঁতীপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকেন। একই জেলার শার্শা উপজেলার নাভারন বাজারে ‘তানিষা এন্টারপ্রাইজ’ নামে একটি টিভি-ফ্রিজের দোকান আছে জনৈক মো. সেলিম হোসেনের (৪১)।

 

সেলিম হোসেন শার্শা উপজেলার দক্ষিণ বুরুজ বাগান এলাকার আব্দুল কাদেরের ছেলে। উজ্জ্বল বিশ্বাসের জেলার কোতোয়ালি থানার পালবাড়ী মোড়ে ‘ওয়েব ভিশন’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান খুলে তার নিকট থেকে টিভি-ফ্রিজ কেনার অনুরোধ করেন। উজ্জ্বল বিশ্বাস একসাথে অনেক টিভি-ফ্রিজ সেলিম হোসেনের প্রতিষ্ঠানে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে একটি পাঁচ লাখ টাকার চেক গ্রহণ করে। পরবর্তীতে উজ্জ্বল বিশ্বাসের প্রতিষ্ঠান থেকে সরবরাহকৃত পণ্যের মূল্য সেলিম হোসেন প্রদান করতে থাকেন।

 

এছাড়া তার কোম্পানির টিভির গ্যারান্টি বাবদ সিকিউরিটি মানি সেলিম হোসেনের কাছে রাখার কথা। কিন্তু ব্যবসায়িক লেনদেনের পাওনা দুই লাখ পঁয়তাল্লিশ হাজার ছয়শ চৌষট্টি টাকা গ্রহণ না করে সেলিম হোসেনের চেকটি ডিজঅনার করে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসানোর পাঁয়তারা করছে। অতিরিক্ত টাকা গ্রহণের জন্য বিভিন্ন সময় ফোনে চাপ প্রয়োগ করছে। এছাড়া বিভিন্নভাবে ক্ষতি করবে বলেও উজ্জ্বল বিশ্বাস ফোনে সেলিম হোসেনকে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। উজ্জ্বল বিশ্বাস তার কাছে থাকা চেক দিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করবে বলে গত বছরের ৫ নভেম্বর সেলিম হোসেন শার্শা থানায় একটি জিডি করেছেন। জিডি নং ২১২।

 

           ⇒ আরও পড়ুনঃ তিন চাকার বাহন থামিয়ে দিচ্ছে সড়কের গতি

 

এর আগে যশোর পুলিশ লাইনের রিজার্ভ অফিসে কর্মরত এক সহকারী উপ পুলিশ পরিদর্শক ও তার ভাই প্রতারক উজ্জ্বল বিশ্বাসের ফাঁদে পড়ে কয়েক লাখ টাকা খুইয়ে সর্বস্বান্ত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছিল।

ট্যাগস :

বোয়ালমারীতে তদন্তে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে করা চাল আত্মসাতের অভিযোগের সত্যতা মেলেনি

সেই প্রতারক উজ্জ্বলের খপ্পরে এবার শার্শার এক ব্যবসায়ী

আপডেট সময় ০৫:০৮:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার বাসিন্দা উজ্জ্বল বিশ্বাসের সাথে ব্যবসায়িক সম্পর্কের সুবাদে এবার শার্শার এক ব্যবসায়ীকে ফাঁসানোর অভিযোগে জিডি করেছেন ওই ব্যবসায়ী। সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী সেলিম হোসেনের চেকটি ডিজঅনার করে তাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসানোর পাঁয়তারা করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী সেলিম হোসেন থানায় জিডি করেছেন।

 

জিডি সূত্রে জানা যায়, নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার বাসিন্দা কালু বিশ্বাসের ছেলে উজ্জ্বল বিশ্বাস (৩৪) ব্যবসায়িক কাজে যশোর জেলার কোতোয়ালি থানাধীন নীলগঞ্জ তাঁতীপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকেন। একই জেলার শার্শা উপজেলার নাভারন বাজারে ‘তানিষা এন্টারপ্রাইজ’ নামে একটি টিভি-ফ্রিজের দোকান আছে জনৈক মো. সেলিম হোসেনের (৪১)।

 

সেলিম হোসেন শার্শা উপজেলার দক্ষিণ বুরুজ বাগান এলাকার আব্দুল কাদেরের ছেলে। উজ্জ্বল বিশ্বাসের জেলার কোতোয়ালি থানার পালবাড়ী মোড়ে ‘ওয়েব ভিশন’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান খুলে তার নিকট থেকে টিভি-ফ্রিজ কেনার অনুরোধ করেন। উজ্জ্বল বিশ্বাস একসাথে অনেক টিভি-ফ্রিজ সেলিম হোসেনের প্রতিষ্ঠানে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে একটি পাঁচ লাখ টাকার চেক গ্রহণ করে। পরবর্তীতে উজ্জ্বল বিশ্বাসের প্রতিষ্ঠান থেকে সরবরাহকৃত পণ্যের মূল্য সেলিম হোসেন প্রদান করতে থাকেন।

 

এছাড়া তার কোম্পানির টিভির গ্যারান্টি বাবদ সিকিউরিটি মানি সেলিম হোসেনের কাছে রাখার কথা। কিন্তু ব্যবসায়িক লেনদেনের পাওনা দুই লাখ পঁয়তাল্লিশ হাজার ছয়শ চৌষট্টি টাকা গ্রহণ না করে সেলিম হোসেনের চেকটি ডিজঅনার করে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসানোর পাঁয়তারা করছে। অতিরিক্ত টাকা গ্রহণের জন্য বিভিন্ন সময় ফোনে চাপ প্রয়োগ করছে। এছাড়া বিভিন্নভাবে ক্ষতি করবে বলেও উজ্জ্বল বিশ্বাস ফোনে সেলিম হোসেনকে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। উজ্জ্বল বিশ্বাস তার কাছে থাকা চেক দিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করবে বলে গত বছরের ৫ নভেম্বর সেলিম হোসেন শার্শা থানায় একটি জিডি করেছেন। জিডি নং ২১২।

 

           ⇒ আরও পড়ুনঃ তিন চাকার বাহন থামিয়ে দিচ্ছে সড়কের গতি

 

এর আগে যশোর পুলিশ লাইনের রিজার্ভ অফিসে কর্মরত এক সহকারী উপ পুলিশ পরিদর্শক ও তার ভাই প্রতারক উজ্জ্বল বিশ্বাসের ফাঁদে পড়ে কয়েক লাখ টাকা খুইয়ে সর্বস্বান্ত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছিল।