আগামীর প্রত্যাশা ডটকম | logo

১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মন পরিস্কার না থাকলে গঙ্গায় স্নান করে পরিস্কার হবে না -সুবাস সাহা

প্রকাশিত : নভেম্বর ১৪, ২০২০, ১৪:২৪

মন পরিস্কার না থাকলে গঙ্গায় স্নান করে পরিস্কার হবে না      -সুবাস সাহা

স্টাফরিপোর্টারঃ
ফরিদপুরে জাঁক জমকের সাথে পালিত হচ্ছে হিন্দু সম্প্রদায়ের দ্বিতীয় বৃহত্তম উৎসব শ্যামা পূজা ও দীপাবলি উৎসব। এ উপলক্ষে শহরের বিভিন্ন স্পটে ও বিভিন্ন মন্দিরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এ পূজা। হিন্দু শাস্ত্রে মা কালী কে বিপদনাশিনী হিসেবে গণ্য করা হয়ে থাকে। বিভিন্ন অমঙ্গলের হাত থেকে মা কালী তাদের রক্ষা করে থাকেন।

শনিবার সন্ধ্যায় বিভিন্ন পূজা মন্দিরে শ্যামা পূজা অনুষ্ঠিত হয়। সেই ধারা বাহিকতায় শহরের দক্ষিন টেপাখোলা হরিসভা সার্বজনীন শ্রী শ্রী শ্যামা মায়ের পূজা ২০২০ এর শুভদ্বোধনের মাধ্যমে ব্যাপক আয়োজনে অনুষ্ঠানটি পালিত হয়। মোমবাতি জালিয়ে বেধ মন্ত্র পাঠ করো হয়। তার আগে অতিথিদের ফুলের শুভেচ্ছা জানানো হয়।

শ্রী পীযুষ সাহার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের সিনিয়র সহ সভাপতি শ্রী সুবাস সাহা। এসময় সুবাস সাহা বলেন- গর্বের সাথে বলতে হয়, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্য, জননেত্রী শেখ হাসিনার কারনে আজ বাংলাদেশের হিন্দুরা শান্তিতে সকল পূজা উৎসব পালন করতে পারছে।

আমাদের মন পরিস্কার রাখতে হবে। মন পরিস্কার না থাকলে গঙ্গায় স্নান করেও পরিস্কার হবে না। অসুন আমরা সবাই মিলে মায়ের কাছে প্রার্থনা করি আমাদের মনকেও পরিস্কার করি। ফরিদপুর আমার অত্যান্ত কাছের যশোদা জীবন দেবনাথ ও বিশ্ব নাথ সাহা তনু বিভিন্ন কল্যান মূখী কাজে ভূমিকা রাখেন, আমরা তাদের জন্য মায়ের কাছে প্রার্থনা করি।

এসময় বিশ্ব নাথ সাহা তনু তার বক্তব্যে বলেন আমি আপনাদের পাশে আছি, আপনাদের কোন সমস্যা থাকলে আমাকে জানাবেন। আরো বক্তব্য রাখেন ফরিদপুর পৌর মেয়র শেখ মাহাতাব আলী মেথু, পলাশ সাহা, মায়েন্দ্র নাথ কর্মকার অরুপ সাহা প্রমূখ্য। এছাড়া শহরে প্রায় শতাধিক মন্দিরে এ পূজা অনুষ্ঠিত হয় এবং দীপাবলি উৎসব উপলক্ষে বিভিন্ন বাড়ি ও প্রতিষ্ঠান মনোরম আলোকসজ্জা করা হয়।

তবে করোনা মহামারীর কারণে কোন কোন মন্দিরে ভক্তদের ততটা উপস্থিতি লক্ষ করা যায়নি। এদিকে দীপাবলি ও কালী পূজা উপলক্ষে বিভিন্ন মন্দির কমিটির উদ্যোগে আগামীকাল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, শিশু-কিশোরদের চিত্রাঙ্কনপ্রতিযোগিতা। ও আরতী প্রতিযোগিতার আয়োাজন করা হয়েছে। মন্দিরেতে পূজা শেষ হলে অঞ্জলি ও প্রসাদ বিতরণ করা হয়ে থাকে।

এদিকে পবিত্র দীপাবলিও শ্যামা পূজা উপলক্ষে শহরের অম্বিকাপুর পৌর মহাশ্মশানে বিকেল থেকেই বিশেষ প্রার্থনা শুরু হয়। এতে মহামারী করোনা থেকে পরিত্রান পাবার উদ্দেশ্যে বিশেষ প্রার্থনা করা হয়।




error: Content is protected !!