শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৩০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
E-Paper-15.08.2021 নড়াইলে কঠোর লকডাউন চলছে, আক্রান্তের হারও হু হু করে বাড়ছে থেমে নেই মৃত্যু কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্টের হেলিকপ্টারে গুলি: ‘জাকারবার্গ’কে খুঁজে দিতে পুরস্কার ঘোষণা! মাগুরার মহম্মদপুরে যুবকের বস্তাবন্ধি লাশ উদ্ধার। ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশু কন্যার জীবন বাঁচাতে সাহায্য কামনা অনুষ্ঠিত হলো তথ্য কর্মকর্তাদের ভার্চুয়াল কর্মশালাঃ তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের কর্মীদেরকে সরকার ও জনগণের মধ্যে “সেতুবন্ধ” বললেন সচিব নগরকান্দায় বাস-ট্রাক মুখোমুখি সংঘর্ষ আহত -১৫ কুষ্টিয়ায় আলোচিত ইসলামী বক্তা মুফতি আমির হামজা আটক আলফাডাঙ্গায় আ’লীগ নেতার বাড়িতে হামলা গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ বোয়ালমারীতে কলেজ ছাত্রকে হত্যার হুমকি, নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে পরিবার

বশেমুরবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের মেস ভাড়া ৪০ শতাংশ পর্যন্ত মওকুফ

বশেমুরবিপ্রবি সংবাদদাতা, গোপালগঞ্জঃ

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের মেস ভাড়া স্থানভেদে ২৫ থেকে ৪০ শতাংশ মওকুফ করেছে বাড়ির মালিকেরা। তবে বেশ কয়েকটি স্থানে ভাড়া মওকুফের বিষয়টি অমীমাংসিত রয়ে গেছে।

শুক্রবার (১২.০৬.২০২০) বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও মেস ভাড়ার সমস্যা নিয়ে গঠিত কমিটি নবীনবাগ এলাকায় মেস মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করে ২৫ শতাংশ ভাড়া মওকুফের সিদ্ধান্ত নেয়। ওই এলাকায় ভাড়া থাকা শিক্ষার্থীরা এপ্রিল মাস থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষা শুরু না হওয়া পর্যন্ত এভাবে ভাড়া দিবে বলে সিদ্ধান্ত হয়। সেইসঙ্গে বিদ্যুৎ বিলও দিতে হবে শিক্ষার্থীদের। তবে নবীনবাগে ভাড়া থাকা অধিকাংশ শিক্ষার্থী বলছেন, এই দুর্যোগের সময়ে ২৫ শতাংশ ভাড়া মওকুফ সান্তনা ছাড়া আর কিছুই না। এতে আমাদের ভোগান্তি তেমন কমবে না।

এ সংক্রান্ত আগের সংবাদঃ বিদ্যুৎ বিলসহ ভাড়া দাবি মেস মালিকদের, দুর্ভোগে ১০ হাজার শিক্ষার্থী

এদিকে পূর্বের এক আলোচনায় গোবরাসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশের কয়েকটি স্থানের বাড়ির মালিকেরা ৪০ শতাংশ ভাড়া মওকুফের সিদ্ধান্ত নেয়। এসমস্ত এলাকার ভাড়া কিছুটা মওকুফ হলেও পাচুড়িয়া, ঘোষেরচর, মান্দারতলা ও গোপালগঞ্জ শহরসহ আশেপাশের এলাকায় ভাড়া মওকুফের বিষয়টি অমীমাংসিত রয়েগেছে।

এবিষয়ে গঠিত কমিটির সদস্য সচিব মো. ফায়েকুজ্জামান মিয়া বলেন, কয়েকটি এলাকার ভাড়া মওকুফের বিষয়ে সিদ্ধান্ত এখনও নেওয়া হয়নি। তবে খুব দ্রুত আলোচনা হবে বলে মনে করি।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাসের কারণে গত মার্চ মাস থেকে টিউশনসহ সবকিছু বন্ধ হয়ে গেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনাবাসিক প্রায় ১০ হাজার শিক্ষার্থী বাড়ি কিংবা মেস ভাড়া নিয়ে সমস্যায় পড়েন। পরে বিষয়টি সমাধানের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন একটি কমিটি গঠন করে কাজ করে যাচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email


     এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ